তিতাস একটি নদীর নাম’ : ব্যক্তিজীবন বনাম গোষ্ঠীজীবনের প্রত্যাশা ও প্রাপ্তির দ্বন্দ্ব

চন্দন কুমার সাউ

Ph.D Research scholar, Burdwan University. Email: chandanshow2015@gmail.com

 Volume VII, Number 2, 2017 I Full Text PDF

DOI: 10.25274/bcjms.v7n2.v7n2bnl01

Abstract:

বাংলা সাহিত্যে কোন একটি বিশেষ জনগোষ্ঠীর জীবন নিয়ে লেখা উপন্যাসের সংখ্যা কম নয়। আর সেই ধারায় অদ্বৈত মল্লবর্মণের ‘তিতাস একটি নদীর নাম’ উপন্যাসটির কথা বিশেষভবেই উল্লেখের দাবি রাখে। তিতাস নদী থেকে মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করা একদল জেলে-সম্প্রদায়ের(মালো সমাজ) জীবন নিয়ে উপন্যাসটি লিখেছেন ঔপন্যাসিক। মালোদের জীবনের এক সামগ্রিক চালচিত্রই তুলে ধরা হয়েছে এই উপন্যাসে। প্রতিটি মালো নরনারীর ব্যক্তিগত জীবন, তাদের গোষ্ঠী-জীবনের নিজস্ব সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য এবং তিতাসের উপর নির্ভরশীল মালোদের জীবন ও জীবিকার পুঙ্খানুপুঙ্খ পরিচয়ই ধরা পড়েছে উপন্যাসটির মধ্যে। আর মালোদের জীবনকথা এই উপন্যাসটির নিবিড় পাঠ নিলে আমরা সমগ্র উপন্যাসের মধ্যে একটা বিষণ্ণতার ছোঁয়া তথা একটা ট্র্যাজিক সুর ফুটে উঠতে দেখি।যার মূলে রয়েছে জীবনের প্রত্যাশা ও প্রাপ্তির  চিরকালীন দ্বন্দ্ব। আমাদের গবেষণার বিষয়ই হল, অদ্বৈত মল্লবর্মণের ‘তিতাস একটি নদীর নাম’ উপন্যাসে কিভাবে জীবনের এই প্রত্যাশা ও প্রাপ্তির দ্বান্দ্বিক রূপটি ধরা পড়েছে, সেটির উপর আলোকপাত করা।এক্ষেত্রে বিষয়টিকে আমরা দুদিক থেকে দেখাবার চেষ্টা করব—–

(ক) প্রতিটি মালো নরনারীর ব্যক্তিগত জীবন প্রসঙ্গে এই প্রত্যাশা-প্রাপ্তির দ্বন্দ্বের ক্ষেত্রটি।

(খ) আঞ্চলিক উপন্যাস হিসাবে একটি জনগোষ্ঠীর নিজস্ব সংস্কৃতি ও জীবিকার সংকটকে ঘিরে গোষ্ঠীজীবনের ক্ষেত্রে এই প্রত্যাশা-প্রাপ্তির দ্বান্দ্বিক রূপটি।

সূচক শব্দঃ অদ্বৈত মল্লবর্মণ, তিতাস একটি নদীর নাম, প্রত্যাশা ও প্রাপ্তির দ্বন্দ্ব,ব্যক্তিজীবন, গোষ্ঠীজীবন