Articles

ইন্দ্রিয়সংযমের শিক্ষা ও রামায়ণঃ একটি আলোচনা

শিশির কুমার ঢালী

সহশিক্ষক, গয়েশ্বরী প্যারী ভুবন বিদ্যানিকেতন, Email: dhali.sisirkumar99@gmail.com

  Volume VII, Number 2, 2017 I Full Text PDF

DOI: 10.25274/bcjms.v7n2.v7n2bnl02

সংক্ষিপ্তসার (Abstract):       

মনুষ্যদেহে বসবাসকারী ষড়রিপুর অন্যতম কাম। ভগবান তাঁর সৃষ্টিকে পঞ্চ-ইন্দ্রিয়ের দ্বারা উপভোগ করবার জন্যই মনুষ্য প্রজাতির সৃষ্টি করেছেন। সুতরাং, পৃথিবীতে সৃষ্টি বজায় রাখতে গেলে নিঃসন্দেহে কামের প্রয়োজন আছে। যেহেতু কামাদি রিপুগুলি সহজাত, তাই এগুলির সমূলে বিনাশ সম্ভব নয় এবং তা কাম্যও নয়; এর দমন সম্ভব এবং তা বাঞ্ছনীয়। কিন্তু কাম-প্রবৃত্তি অসংযতভাবে বৃদ্ধি পেলে সমাজে নারীজাতি অনেক ক্ষেত্রেই তার শিকার হয়ে থাকে। শুধু তাই নয়, অসংযত মন ও ইন্দ্রিয়ের বশীভূত ব্যক্তি নিজকৃত কর্মের পরিণাম সম্পর্কে সচেতন থাকতে পারে না। অপিচ কাম-কামনা ঋদ্ধিমান পুরুষের শুভবোধকে পর্যন্ত হরণ করে থাকে। কামের এই সর্বগ্রাসী প্রবৃত্তির অবশ্যম্ভাবী ফলস্বরূপ পুত্রপ্রীতি, ভ্রাতৃপ্রীতি, পত্নীপ্রীতি ও বন্ধুতা থেকে শত্রুতায় পরিণত করে। তাই আদিকবি বাল্মীকি তাঁর আর্য রামায়ণে বিবিধ চরিত্র ও ঘটনাবলীর অনুসঙ্গে সমাজকে ইন্দ্রিয়াসক্তির বিরূপ প্রতিক্রিয়া সম্বন্ধে সমুচিত শিক্ষা দিতে এই কালজয়ী আখ্যান রচনা করেছিলেন।

সূচকশব্দ (Keywords): রামায়ণ, বাল্মীকি, ষট্‌রিপু, কামনিন্দা, ইন্দ্রিয়সংযম